fbpx

কবরীর ক্যাডার, চালচোর, শীর্ষ সন্ত্রা’সী, আলাউদ্দিন হাওলাদার গ্রে’ফতার!

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লা থানার কুতুবপুর ইউনিয়নের ইউপি সদস্য আলাউদ্দিন হাওলাদার।

ত্রাণের চাল চুরির দায়ে ব্যাপক সমালোচিত এই সন্ত্রাসী গ্রে’ফতার হয়েছেন বলে এলাকায় ব্যাপক গুঞ্জন ছড়িয়েছে।

একাধিক সূত্রে জানা যায়, করোনাভাইরাস পরিস্থিতির কারণে সরকার বিপুল পরিমাণ ত্রাণ বরাদ্দ দিয়েছে। আর সেই ত্রাণ আ’ত্মসাৎ এর সুস্পষ্ট প্রমাণ মিলেছে আলাউদ্দিন ওরফে মগা আলাউদ্দিনের বিরু’দ্ধে।

এ নিয়ে সংবাদ সম্মেলনেও বিভিন্ন প্রমাণ তুলে ধরেছেন স্থানীয় এক যুবক। এ ছাড়া হতদরিদ্রদের জন্য বরাদ্দকৃত দশ টাকা কেজির চালও দোকানে বিক্রি করে দিয়েছেন মগা আলাউদ্দিন।

এ এমন সব অভিযোগে এই সন্ত্রাসী গ্রে’ফতার হয়েছেন, শনিবার সকাল থেকেই এমন খবর ছড়িয়ে পড়ে সর্বত্র।

যদিও অনেকে বলছেন, আলাউদ্দিনকে থানায় নিয়ে যাওয়া হয়েছিলো। সেখানে সবার সামনে দায় স্বীকার করে কানধরে উঠবস করেছেন তিনি।

পাশাপাশি এক লাখ টাকাও দিয়েছেন বিভিন্ন মহলে।

মগা আলাউদ্দিন এলাকায় চলেন বিশাল বাহিনী নিয়ে। সেই বাহিনী দেখভালের দায়িত্ব দিয়েছেন গুনধর পুত্র সন্ত্রাসী তপন ওরফে কুত্তা তপনকে।

বাহিনীর অন্যান্য সদস্যদের মধ্যে রয়েছে খলিল, গেন্দু, স্বপন, জাহিদ, আনোয়ার, সোহাগ, খোকন ওরফে ইয়া’বা খোকন। সন্ত্রা’স, ছি’নতাই, জমি দখল, চাঁদাবা’জিসহ এই বাহিনীর অপক’র্মে এলাকাবাসী অতিষ্ঠ।

কবরীর আমলে মগা আলাউদ্দিনের বাহিনীর অত্যাচারে অতিষ্ঠ ছিল এলাকাবাসী। এর পর ভোল পাল্টে শামীম শিবিরে যোগ দেন তিনি।

আপন প্রবাসী ভাগ্নের বউয়ের সঙ্গে পরকীয়া করে জানাজানি হওয়ায় তার সাথে জোর করে ওই মহিলাকে বিয়ে করিয়ে দেয়া হয়।

সম্প্রতি ছাগল চুরির অপবাদ দিয়ে দু যুবককে নারকীয় নির্যাতন চালিয়ে গ্রে’ফতার হন মগা আলাউদ্দিন।

ফেসবুকে লাইক দিন