লকডাউনের অনেকের মধ্যে রাঁধুনি সত্তা জেগে উঠেছে। কেউ রান্না শিখতে শুরু করেছেন, কেউ আবার পুরনো নেশাকে ঝালিয়ে নিচ্ছেন। সময়ও অঢেল।

আর সেই কারণেই চটজলদি স্বাস্থ্যকর খাবারের বদলে কষিয়ে রান্নার স্বাদ নিতে শুরু করেছে বাঙালি।

বিশেষ করে যাঁরা নতুন রান্না শিখছেন, ইউটিউব দেখে, তাঁরা সেখানে বলা সমস্ত উপকরণি ব্যবহার করতে বদ্ধপরিকর। কিন্তু জানেন কি, রান্নার অনেক উপকরণ আমাদের অস্বাস্থ্যকর করে তোলা এবং দেহে ক্যালোরি মাত্রাতিরিক্ত বাড়িয়ে দেয়?

তাই অনলাইনে রান্না শিখলে এই উপাদানগুলি এড়িয়ে চলুন।

কেকের দোকান এখন খোলা নেই। তাই কেক খেতে ইচ্ছা করলে বাড়িতেই তা বানাতে হচ্ছে।

আর কেক তৈরি করতে প্রচুর পরিমাণে ভেজিটেবল তেল লাগে। এদিকে খেয়াল রাখুন। কেক সুস্বাদু করতে গিয়ে একেবারেই তেল বেশি ব্যবহার করবেন না।

একই কথা প্রযোজ্য মাখনের ক্ষেত্রেও। এক কাপ মাখনে ১ হাজার ৬২৮ গ্রাম ক্যালরি থাকে। স্যাচুরেটেড ফ্যাড থাকে ১১৬ গ্রাম। তার বদলে পাকা কলা ব্যবহার করতে পারেন। এর ক্যালরি ২০০ গ্রাম।

স্যাচুরেটেড ফ্যাট হাফ গ্রামেরও কম। এছাড়া কলায় পটাশিয়াম, ফাইবার ও ভিটামিন বি থাকে।

একইভাবে চিনির পরিবর্তে ব্যবহার করা যেতে পারে মধু। এক কাপ চিনিতে ৭৭৪ ক্যালোরি থাকে।

তার পরিবর্তে অল্প মধু ব্যবহার করলে ক্ষতি অনেকটাই কমে। ক্রিমের বদলে ব্যবহার করতে পারেন নারকেলের দুধ।

স্বাদের হয়তো একটু হেরফের হবে। কিন্তু শরীর তো ভাল থাকবে।