fbpx

৪০ দিন নামাজ পড়ে সাইকেল পুরস্কার পেল নেত্রকোনার ২১ শিশু-কিশোর

নেত্রকোনার আটপাড়া উপজেলায় টানা ৪০ দিনব্যাপী মসজিদে ‘তাকবীর উলা’র সাথে জামায়া’তে পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ আদা’য়কারী ২১ শিশু-কিশোরকে পুরস্কার হিসেবে একটি করে বাইসাই’কেল দেওয়া হয়েছে।

বুধবার (১১ আগস্ট) বিকেলে উপজেলার গ্রিদা’ন টেংগা জামে মসজিদ প্রাঙ্গণে বিজয়ী শিশুদের প্রত্যেককে একটি করে বাইসাইকেল তুলে দেন মসজিদ কমিটির সদস্যরা।

গ্রামের শিশুরা যাতে মসজিদে যেতে অভ্যস্ত হয়, নামাজে’র গুরুত্ব সম্পর্কে জানতে পারে এবং একত্ববাদ ও সমাজে পারস্পরিক ভ্রাতৃত্ববোধ প্রতিষ্ঠা করতে পারে-এসব লক্ষ্যকে সামনে রেখে গ্রিদান টেংগা গ্রামের মাওলানা আব্দুল লতিফের কাতারপ্রবাসী সন্তান মাওলানা মাহমুদুল হাসানের উদ্যোগে “মাওলানা আব্দুল লতিফ (রহ.) ফাউন্ডেশন” এই ব্যতিক্র’মধর্মী প্রতিযোগিতার আয়োজন করে। সহযোগী উদ্যোক্তা হিসেবে ছিলেন মাওলানা মাহমুদুল হাসানের আরো দুই ভাই কাতারপ্রবাসী মাওলানা এনামুল হাসান আরি’ফ এবং আরেক ভাই মাওলানা নাজমুল হাসান তারিফ।

প্রতিযো’গিতায় শর্ত ছিল ১২ থেকে ২৫ বছর বয়সী শিশু-কিশোরদের স্থানীয় গ্রিদান টেংগা জামে মসজিদে গি’য়ে জামায়াতের সাথে টানা ৪০ দিন ধারাবাহিকভাবে নামাজ আ’দায় করা এবং নামাজে বেশি’হারে প্রয়োজনীয় ১০টি সুরা সহিহ-শুদ্ধ’ভাবে মুখস্থ করা। পুরস্কার হিসেবে তাদের প্রত্যে’ককে একটি ক’রে বাইসাইকেল প্রদান করা হবে।

প্রতিযোগি’তায় সাড়া দিয়ে প্রথম দিকে অন্তত ৪৫ জন শিশু-কিশোর নামাজ আদায় শুরু কর’লেও চূড়ান্ত পর্যায় পর্যন্ত ২১ জন শিশু-কিশোর টিকে থেকে বিজয়ী হয়েছে। স্থানীয় ও ঢা’কা থেকে আগত গণ্যমান্য ব্যক্তিদের উপস্থি’তিতে বিজয়ীদের হাতে পুর’স্কার তুলে দেয়া হয়।

ব্যতিক্রমধর্মী এই আয়োজনের প্রধান উদ্যোক্তা কাতারপ্রবাসী মাওলানা মাহমুদুল হাসান জানান, বর্ত’মান আধুনিক যুগে বে’শির ভাগ শিশুরাই মোবাইল, টিভি এবং ল্যাপটপের স্ক্রিনে নিজেকে সীমাবদ্ধ করে ফেলছে। শিশুদের মোবাইল আস’ক্তি ভয়াবহ আকার ধারণ ক’রায় বর্তমানে বেশিরভাগ শিশুদের মধ্যে’ই ধর্মীয় আচার-অনু’ষ্ঠান পালনে অ’নীহা সৃষ্টি হয়েছে। শিশুরা যাতে নিয়মিত মসজিদে যেতে অভ্য’স্ত হয়, নামাজের ফজিলত সম্প’র্কে জানতে পারে এবং শিশুদের মধ্যে যাতে ধর্মীয় আচার-অনুষ্ঠান পালনে আগ্রহ সৃষ্টি হয়-এমন উদ্দে’শ্যকে সামনে রেখে আমাদের এমন কর্ম’সূচি হাতে নেওয়া। এতে প্রায় অর্ধ শতাধিক শিশু অংশগ্রহণ করলেও তাদের থেকে ২১ জন বি’জয়ী হয়েছে।

ফেসবুকে লাইক দিন