fbpx

হাত নেই মুখ দিয়ে পাতা উল্টিয়ে পবিত্র কুরআনের হাফেজ

৩৫ বছর বয়সী তারিক আল-ওদায়ীকে শারীরিক প্রতিবন্ধকতা দমাতে পারেনি। জন্ম থেকেই হাত-পা নেই।

তারিক আল-ওদায়ী পেটে ভর করে পথ চলেন। কঠিন রোগে ভোগেও তিনি মুখ দিয়ে পবিত্র কোরআনের পাতা উল্টিয়ে ৩০ পারা মুখস্থ করতে সক্ষম হয়েছেন।

অদম্য স্পৃহায় চার বছরে কোরআনের হাফেজ হয়েছেন তিনি। মুখ দিয়ে পবিত্র কোরআনের পাতা উল্টিয়ে নিয়মিত কোরআন তেলাওয়াত করেন তারিক।

সৌদি আরবের আসির প্রদেশের সিরাহ ওবাইদা শহরের ৩৫ বছর বয়সী এই তারিক আল-ওদায়ীর বাসায় গিয়ে তার শিক্ষক পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত ও হেফজ প্রশিক্ষণ দিতেন।

এছাড়াও তারিক টেলিফোন এবং কম্পিউটার চালানো শিখেছেন ও সামাজিক নেটওয়ার্কেও তিনি সক্রিয় রয়েছেন।

বিভিন্ন আলেম’দের সঙ্গে ইন্টারনেটের মাধ্যমে যোগাযোগ রাখেন বলে জানা গেছে।

সৌদি আরবের আসির প্রদেশের কোরআন হেফজ সেন্টারের সহযোগিতায় তিনি চার বছরে সম্পূর্ণ কোরআন হেফজ করতে সক্ষম হয়েছেন।

আরো পড়ুনঃ শুধু কোরআন তেলাওয়াত করেই বোবা মানুষ সুস্থ করছেন ডা. আলী মোহাম্মদ

ডা. আলী মোহাম্মদ যিনি বিশ্বে মালা আলী কুর্দিশ নামে পরিচিত।

আর তার পরিচিতি এসেছে মূলত পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত করে রোগী সুস্থ করে তোলার কারণে।

চমকে যাওয়া মতো তথ্য হলো মালা আলীর চিকিৎসার ধরণ পুরোটাই ইসলাম ধর্মভিত্তিক।

তিনি পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত করে অনেক রোগীকে সুস্থ করে তুলেছেন।

তার চিকিৎসার বহু ভিডিও ইউটিউব ও অন্যান্য সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে।

তিনি পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত করে যে চিকিৎসাগুলো দিয়ে থাকেন তার মধ্যে- অন্ধত্ব, বধির, জ্বীনের আছর, প্যারালাইসিস অন্যতম।

পুরো ইরাক জুড়ে তার ৪টি সামাজিক অলাভজনক হাসপাতাল রয়েছে।

‘চ্যারিটি হসপিটাল প্রফেট মেডিসিন হসপিটাল’ নামে তার হাসপাতালগুলো চলে।

ফেসবুকে লাইক দিন